Friday, September 21, 2012

জল চিকিৎসা !

ডাক্তাররা বলে থাকেন, একজন সুস্থ স্বাভাবিক মানুষের দিনে ৮ লিটার পানি পান করা উচিৎ। এটি নিশ্চয়ই আমরা অনেকেই জানি। কিন্তু কখন পান করা উচিৎ এই ৮ লিটার পানি? এই প্রশ্নটির উত্তরেই লুকিয়ে আছে সুস্থতার একটি গোপন রহস্য। এই রহস্যটি ভেদ করলেই বেঁচে থাকা যাবে ১০০ বছর বা তার বেশি। জাপান সিকনেস সোসাইটি (Japanese Sickness Society) একটি গবেষণার মাধ্যমে এই রহস্য ভেদ করেছেন। তারা এই রহস্যটির সমাধানের নাম দিয়েছেন ওয়াটার থ্যারাপি (জল চিকিৎসা)।

উপকারিতা

জল চিকিৎসার সবচেয়ে বড় উপকারিতা হচ্ছে এটি প্রয়োগ করতে কোনো বাড়তি খরচ হয় না। শুধু ঠিক সময়মত পানি পান করাই এর মূল কথা। আরেরকটি সুবিধা হল এর কোনো সাইড এফেক্ট বা পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই। বরং ঠিক সময়মত পানি পান করার কথা ডাক্তাররাই বলে থাকেন। কাজেই আপনি নির্দ্বিধায় এই প্রাকৃতিক চিকিৎসা চালিয়ে যেতে পারেন। এমনকি আপনি যদি সম্পূর্ণ সুস্থও থেকে থাকেন তারপরও এটি আপনার উপকারে আসবে।
জল চিকিৎসা নিয়মিত চালিয়ে গেলে এই রোগগুলো থেকে মুক্তি পাওয়া যায়:
  •     মেনিনজাইটিস, ব্লাড প্রেসার, রক্তস্বল্পতা, প্যারালাইসিস, স্থূলতা, আর্থ্রাইটিস, অচৈতন্য
  •     কাশি, ঠাণ্ডা, ব্রংকাইটিস, টিবি
  •     মাথা ব্যাথা, লিভারের রোগ, প্রস্রাবের সমস্যা
  •     এসিডিটি, গ্যাসট্রিকের সমস্যা
  •     কৌষ্ঠকাঠিন্য, পাইলস, ডায়েবেটিস
  •     চোখের সমস্যা
  •     নারীদের অনিয়মিত মাসিক, Lacunaria, ডিম্বাশয়ের ক্যানসার
  •     নাক ও গলার সমস্যা

চিকিৎসার পদ্ধতি

এই পদ্ধতিটি এমন:

সকালে
সকালে ঘুম থেকে উঠে কিছু খাবেন না, পান করবেন না এমনকি হাত-মুখ ধোয়া বা দাঁত ব্রাশও করবেন না। এই অবস্থায় প্রথমেই ৪ গ্লাস পানি পান করুন। প্রথম দিনে ৪ গ্লাস পানি পান করতে না পারলে আস্তে আস্তে অভ্যাস করুন। যেমন প্রথমদিনে ১ গ্লাস, পরের দিন ২ গ্লাস, তার পরের দিন ৩ গ্লাস – এভাবে ৪ গ্লাসে পৌছান।

এই পানি পানের পর ৪৫ মিনিটের মধ্যে আপনি কিছু খাবেন না বা পান করবেন না। তবে পানি পানের পর দাঁত ব্রাশ, হাত-মুখ ধুতে পারবেন।

৪৫ মিনিট পর সকালের নাস্তা করুন। নাস্তার আগে পানি পান করতে পারবেন, তবে নাস্তা শেষ করে সঙ্গে সঙ্গে পানি পান করবেন না। ১ ঘন্টা পর পানি পান করুন।

এরপর দুপুর পর্যন্ত পানাহার স্বাভাবিক নিয়মে চালিয়ে যান। তবে কিছু খাওয়ার পর কমপক্ষে ১৫ মিনিট বিরতি দিয়ে পানি পান করা উচিৎ।

দুপুরে
দুপুরে খাওয়ার আগে স্বাভাবিক নিয়মে পানি পান করতে পারবেন। কিন্তু খাওয়ার পর ১ ঘণ্টা পর্যন্ত পানি পান করবেন না। ১ ঘণ্টা পর পানি পান করুন এবং স্বাভাবিক নিয়মে পানি পান করতে থাকুন।

রাতে
রাতে খাওয়ার আগে স্বাভাবিক নিয়মে পানি পান করতে পারবেন। কিন্তু খাওয়ার পর ১ ঘণ্টা পর্যন্ত পানি পান করবেন না। ১ ঘণ্টা পর পানি পান করুন এবং স্বাভাবিক নিয়মে পানি পান করতে থাকুন। ঘুমাতে যাওয়ার দেড় থেকে ২ ঘণ্টা আগে কিছু খাবেন না। অনেকে রাতের খাবার খেয়ে সঙ্গে সঙ্গে শুয়ে পড়ে। এতে শরীরের অনেক ক্ষতি হয়।

মূল কথা হচ্ছে খাবার হজম হওয়ার সময় পানি খাওয়া উচিৎ নয়। এতে হজমের পাচকরসের সাথে পানি মিশে হজমশক্তি কমে যায়। তবে কিছু শুষ্ক খাবার পানি বেশি টানে। সেক্ষেত্রে অল্প কিছু পানি পান করা যেতে পারে।

ফলাফল

গবেষণায় দেখা গেছে এই পদ্ধতিতে রোগ সারতে নিম্নোক্ত সময় নেয়:
  •     হাই ব্লাড প্রেসার (High BP) / হাইপারটেনশন –– ১ মাস
  •     গ্যাসট্রিকের সমস্যা –– ২ দিন
  •     ডায়েবেটিস –– ১ সপ্তাহ
  •     কৌষ্ঠকাঠিন্য –– ১ দিন
  •     ক্যানসার –– ১ মাস
  •     টিউবারকোলসিস (টিবি) –– ৩ মাস
শুধু সময়মত পানি পান করেই স্বাস্থ্যলাভের এ এক বিস্ময়কর পদ্ধতি। এ পদ্ধতি যেমন সাশ্রয়ী তেমনি এটি পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াবিহীন। কথায় আছে - “Prevention is better than cure”। অর্থাৎ রোগ হবার আগেই তা প্রতিরোধ করা ভাল। তাই আজই এই প্রাকৃতিক চিকিৎসা পদ্ধতি শুরু করুন এবং নিজেকে রোগমুক্ত রাখুন।
এ পদ্ধতিটি যে কেউ অনুসরণ করতে পারে, তাই আপনার পরিবারের সদস্য, আত্মীয়-স্বজন ও বন্ধুবান্ধবের মাঝে পদ্ধতিটি ছড়িয়ে দিন। আপনার আশেপাশের মানুষগুলো সুস্থ থাকলে আপনারও মন ভাল থাকবে।

( সতর্কতা: থ্যারাপিটি অনুসরণ করার পূর্বে আপনার ডাক্তারের পরামর্শ নিন। )

তথ্যসূত্র/রেফারেন্স:
http://www.vegsochk.org/HealthDYI/WaterTherapy.htm
http://files.meetup.com/1571544/WaterTherapy.pdf
http://www.meditationandyoga.in/bookspublished/Miraculouswatertherapy.pdf

0 comments:

 

Blogroll

Translate This Blog

Copyright © আদনানের ব্লগ Design by BTDesigner | Blogger Theme by BTDesigner | Powered by Blogger