Monday, January 7, 2013

পেনড্রাইভেই সেটাপ করুন উবুন্টু

উবুন্টু কেন?


উবুন্টু হচ্ছে লিনাক্সের সবচেয়ে সহজ ভেরিয়েন্ট। এটি উইন্ডোজের মতই একটি অপারেটিং সিস্টেম। কয়েকদিন ধরে আমার HP-Mini নোটবুকে Ubuntu 12.04.1 LTS চালাচ্ছি। এজন্য অবশ্য আমি আমার হার্ডডিস্কে একটা আচড়ও পড়তে দেই নি। আমার পেনড্রাইভেই উবুন্টু সেটাপ করে নিয়েছি। যা ইন্সটল করার বা আনইন্সটল করার করি। সেটি পেনড্রাইভে সেভ হয়ে থাকে। তারপর সেই পেনড্রাইভটি যে কম্পিউটারে প্রবেশ করাই, তাতেই আমার সফটওয়্যারসহ উবুন্টু চলে আসে। এই আইডিয়াটি দারুণ লাগে আমার কাছে। যখন বিদ্যুত থাকে তখন হয়ত ডেস্কটপে বসে কাজ করছি, আবার বিদ্যুত চলে গেলে নোটবুকে ঔ একই সফটওয়্যার ব্যবহার করতে পারছি। এতে করে একই পরিবেশে বিভিন্ন মেশিনে কাজ করা যাচ্ছে। এমনকি যদি এমনও হয় যে আমার হার্ডডিস্ক ক্র্যাশ করেছে, তখনও এই পেনড্রাইভ দিয়ে কম্পিউটার চালাতে পারবো। এককথায় অসাধারণ!





সফটওয়্যার সম্ভার


উবুন্টুতে উইন্ডোজের সফটওয়্যার চলে না। তবে উবুন্টুতে উইন্ডোজের সফটওয়্যারগুলোর বিকল্প রয়েছে। এবং মজার ব্যাপার হল উবুন্টুর সেই সফটওয়্যারগুলো পেতে এক পয়সাও খরচ করতে হয় না - সম্পূর্ণ বিনামূল্যে পাওয়া যায়। যেমন: উবুন্টুতে এমএস অফিস আর ওয়ার্ড, এক্সেল, পাওয়ারপয়েন্টের মতই রয়েছে Libre Office আর Writer, Calc, Impress । এগুলো উবুন্টতে নিজে নিজেই ইন্সটল হয়, তাই একগাদা সিডি নিয়ে দৌড়াদৌড়ির প্রয়োজন নেই। তাই আপনি যদি পেনড্রাইভে উবুন্টু সেটাপ করে রাখেন তাহলে সুবিধা হল আপনার যদি কোন ডকুমেন্ট দেখাতে হয় এবং সেখানে যদি উইন্ডোজ নষ্ট হয়ে গিয়ে থাকে তাহলে আপনি উবুন্টুতেই ডকুমেন্টটি দেখাতে পারবেন। এটি তো কেবল একটি সুবিধা। এতে নিজস্ব ZIP/কমপ্রেশন সফটওয়্যার, অডিও/ভিডিও প্লেয়ার, সিডি বার্নার, পিডিএফ ভিউয়ার, ফায়ারফক্স, গেমস, ডিস্ক ইউটিলিটি, ইমেজ ভিউয়ার, পার্টিশন এডিটর, নেটওয়ার্ক টুল, ফটো ম্যানেজার ইত্যাদি সফটওয়্যার ডিফল্ট হিসেবে ইন্সটল হয়। উবুন্টু থেকে আরো অনেক সুবিধাই পাবেন যা আপনাকে এবং আপনার বন্ধু বান্ধবকে তাক লাগিয়ে দিতে বাধ্য।

আচ্ছা, এক মিনিট! আমি একটু আগে যা বললাম তা কিন্তু পুরোপুরি ঠিক নয়। উবুন্টুতে উইন্ডোজের সফটওয়্যার চালানো যায়। সেজন্য Wine নামে একটি সফটওয়্যার ইন্সটল করতে হয়। ওয়াইন দিয়ে উবুন্টতে এমএস অফিসও ইন্সটল করা সম্ভব। এমনকি বিজয়ও ইন্সটল করা সম্ভব। তবে সব সফটওয়্যারই যে ১০০% উইন্ডোজের মতই কাজ করবে এমন কোন গ্যারান্টি নেই।

ভাইরাসবিহীন জীবন

উবুন্টু চালালে ভাইরাস নিয়ে কোন টেনশন করতে হবে না। যত উদ্ভট ভাইরাস ওয়ালা পেনড্রাইভই হোক, উবুন্টু থেকে ওপেন করলে একদম নিরাপদ।

পেনড্রাইভে উবুন্টু সেটাপ করলে আরো একটি সুবিধা আছে, সেটি হল এটি দিয়ে আপনি উবুন্টুর কাজ শিখতে পারবেন। পছন্দ হলো না, তো পেনড্রাইভ থেকে একটা ফাইল মুছে দিয়ে সেই ফাইলটি তৈরি করে নিয়ে আবার নতুন করে শুরু করতে পারবেন। (ফাইলটির নামটি বলে রাখি: casper-rw) অনেকটা খেলাঘরের মত এটিকে ব্যবহার করতে পারবেন।

মেনু অনেক সহজ

উবুন্টুতে HUD নামে একটি অপশন আছে। ফটোশপের কতগুলো মেনু খেয়াল করেছেন? মাঝে মাঝে কোন একটি মেনুর জন্য হাতড়ে হাতড়ে মরতে হয়। আপনাকে যদি হঠাৎ বলি ইমেজটাকে Blur করার জন্য? কখনো কি আপনার মনে হয়েছে যে মেনুরও সার্চ করার অপশন থাকা উচিৎ? HUD ঠিক তাই করে। কোন সফটওয়্যার চালু করে Alt কি-টি চাপলেই একটি সার্চ অপশন পাবেন। এতে করে আপনি সফটওয়্যারের সকল মেনুতে সার্চ করবেন।

ভবিষ্যতে এই HUD প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে আরো অনেক অপশন আসবে। যেমন আপনি হয়তো ভবিষ্যতের কোন উবুন্টুতে জিম্প (উবুন্টুর ফটোশপ) চালু করে মুখে বলবেন "ব্লার" আর ইমেজটি ব্লার হয়ে যাবে!!!

কাস্টোমাইজেবল - ঠিক আপনি যেমন চান

তাছাড়া ঝানু ইউজার এবং হ্যাকারদের কাছে উবুন্টু অনেক জনপ্রিয়, কারণ উবুন্টু খুটিনাটি প্রায় সবকিছুই কাস্টোমাইজ করা যায়। উইন্ডোজের চাইতেও এটি বহুগুণে বেশি কাস্টোমাইজেবল। উবুন্টু নিজে ব্যবহার না করলে আপনি আসলে বুঝতে পারবেন না এর মজাটা কোথায়।

উইন্ডোজ এবং উবুন্টু

আমি "উইন্ডোজ বনাম উবুন্টু" নামে কোন ঝগড়া করতে চাই না। আসলে উইন্ডোজ আর উবুন্টু দুটা দুই জিনিস। যার কাছে যেটা ভাল লাগে। যেমন: আপনি হয়তো চা পছন্দ করেন, আর আপনার বন্ধু হয়তো কফি বেশি পছন্দ করে। তাই বলে আপনারা নিশ্চয়ই এই ব্যাপারটি নিয়ে রোজ রোজ ঝগড়া করবেন না। এটা যার যার পছন্দের ব্যাপার। (তবে আমি শিকার করি অনেকে ওপেন সোর্স আন্দোলনের নামে অনেকটা আক্রমণাত্মক হয়ে যান! :-) তবে আমার মনে হয় তারা ওপেন সোর্সের প্রতি তাদের ভালবাসার দরুণই এ কাজটি করে থাকেন। Its just love. How can you judge that?! )

স্টেপ-১: উবুন্টু ডাউনলোড করা

পেনড্রাইভে উবুন্ট সেটাপ করার জন্য আমাদের উবুন্টুর সিডি ইমেজটি ডাউনলোড করতে হবে। সিডি ইমেজটি বা ISO ফাইলটিতে উবুন্টুরএকটি সিডি তৈরি করার জন্য সকল ফাইল থাকে। সকল ফাইলকে একটি ISO ফাইলে ডাউনলোড করা যায়। তবে আমরা ISO ফাইলটিকে দিয়ে সিডি নয় বরং একটি পেনড্রাইভ তৈরি করবো।
তাহলে দেরী না করে http://www.ubuntu.com/download/desktop এখান থেকে উবুন্টু ডাউনলোড করুন। আমি সাজেস্ট করবো 12.04.1 / LTS ভার্সনটি ব্যবহার করার জন্য। ১২.১০ ভার্সনটি এখনো অনেক বাগে ভরা। ISOটি ডাউনলোড করুন।

স্টেপ-২: পেন ড্রাইভ রেডি করা

আপনার যেকোন পেনড্রাইভেই উবুন্টু সেটাপ করা যাবে। তবে সেটিতে কমপক্ষে ১ গিগাবাইট স্পেস খালি থাকতে হবে। আজকাল ১ গিগাবাইট কোন ব্যাপার না। যেকোন কম্পিউটারের দোকানে গেলেই ৯০০ টাকায় ভাল মানের ৮ গিগাবাইট পেন ড্রাইভ পাওয়া যায়। যাই হোক, আপনার পেনড্রাইভে দেখুন ১ গিগাবাইট (বা কম করে হলেও ৭০০ মেগাবাইট) স্পেস খালি আছে কিনা। না থাকলে কিছু অদরকারী ফাইল ডিলিট করলে ক্ষতি নেই!

স্টেপ-৩: পেনড্রাইভে উবুন্টু ইনসটল করা


১. http://www.pendrivelinux.com/universal-usb-installer-easy-as-1-2-3/ এখান থেকে Universal USB Installer সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে নিন। এই সফটওয়্যারটি দিয়ে আমরা ISO ফাইল দিয়ে পেনড্রাইভটিতে উবুন্টু সেটাপ করতে পারবো। এই কাজটির জন্য অনেক সফটওয়্যার আছে। তবে এটিই সবচেয়ে ভাল বলে মনে হয়েছে। (কিছু কিছু সফটওয়্যারে পেনড্রাইভটি ফরম্যাট করে লিনাক্স পার্টিশন বানিয়ে ফেলে। তখন উইন্ডোজ থেকে পেনড্রাইভটি পড়া যায় না। কিন্তু এটি দিয়ে পেনড্রাইভটি সেটাপের পরও ব্যবহারযোগ্য থাকে।)

২. পেন ড্রাইভটি কম্পিউটারে প্রবেশ করান। দেখুন কোন ড্রাইভে আপনার পেন ড্রাইভটি লোড হয়েছে।

৩. Universal USB Installer টি চালু করুন। I Agree বাটনে প্রেস করুন।

 

৪. Step 1 এর নিচে ড্রপ ডাউন বক্সে Ubuntu 12.04 সিলেক্ট করুন।

৫. Step 2 তে Browse বাটনে ক্লিক করে আপনার ডাউনলোডকৃত ISO ফাইলটি দেখিয়ে দিন।

৬. Step 3 তে আপনার পেন ড্রাইভের ড্রাইভলেটারটি দিন। এবং নিচের স্লাইডারটি ডানে/বামে নিয়ে আপনার Persistent Storage কত হবে তা নির্ধারণ করে দিন। পারসিস্টেন্ট স্টোরেজ হল আপনার সেটিংস (যেমন ওয়ালপেপার, থিম ইত্যাদি) এবং সফটওয়্যার কতটুকু জায়গায় থাকবে, সেটা। আপনি যদি অনেক সফটওয়্যার ইন্সটল করার ইচ্ছা করে থাকেন তাহলে ১-২ গিগাবাইট বা তার বেশি স্পেস বরাদ্দ রাখতে পারেন। নাহলে যদি সেটিংস বা সফটওয়্যার কোনটিই স্টোর করে রাখতে না চান তাহলে ০ (শূণ্য)তেই রেখে দিন। এখানে দেয়া সাইজ অনুযায়ী casper-rw নামে একটি ফাইল তৈরি হবে। এই ফাইলটিতে আপনার Persistent স্টোরেজটি থাকবে। এটি একটি নকল পার্টিশনের মত। (Universal USB সফটওয়্যারটি ডিফল্ট হিসেবে Ext2 হিসেবে Casper-rw ফাইলটিকে তৈরি করে। পরে এটির আকার পরিবর্তন করে ছোট/বড় করা যায়।)

৭. Create বাটনে ক্লিক করুন। এখন ক্ষাণিকক্ষণ সময় দিন। মোটামুটিভাবে ১-৫ মিনিটের ভিতরে সেটাপটি হয়ে যাবে। একসময় সেটাপ সম্পন্ন হবে এবং একটি Close বাটন দেখতে পাবেন।

এখন পিসি রিস্টার্ট দিন। দেখুন উবুন্টুর বুট মেনু আসে কিনা। যদি উইন্ডোজ লোড হয় তাহলে বুঝবেন আরেকটু কাজ বাকী।

স্টেপ-৪: BIOS সেটাপ

যদি পেন ড্রাইভটি প্রবেশ করানো অবস্থায় Ubuntu'র বুট মেনু না আসে তাহলে আপনার Boot Device Priority নির্ধারণ করতে হবে।

কম্পিউটার চালু হবার সময় যখন বায়োস লোড হয় তখন Delete বা F2 বা Esc চাপুন (একেক মাদারবোর্ডে একেকটি প্রেস করতে হয়)। এতে আপনার বায়োস সেটাপ অপশন পাবেন। এখন Advanced Options বা Boot Options এ যান। একটি ডিভাইসের লিস্ট পাবেন যেখানে CD, HDD, USB Disk ইত্যাদি অপশন পাবেন। সেখানে Instruction দেখে USB Disk / USB HDD অপশনটিকে উপরে নিয়ে আসুন।

তারপর সেটিংস সেভ করে রিস্টার্ট দিন।

===

সতর্কতা:

নতুন ব্যবহারকারীর অনেকে উবুন্টুর ভিতর থেকে ইন্সটল অপশটিতে ক্লিক করে ইন্সটল করার চেষ্টা করে থাকেন। আপনি যদি পার্টিশন সম্পর্কে পটু না হন তবে কিন্তু এভাবে সেটাপ করবেন না। অসতর্ক হলে আপনার হার্ডডিস্কের ফাইল হারিয়ে যেতে পারে। ইন্সটল অপশনটিতে যাবারই দরকার নেই। যদি কম্পিউটারে সেটাপ করার ইচ্ছাই থাকে তাহলে Install inside windows নামে একটা অপশন আছে সেটা ব্যবহার করা যেতে পারে। এভাবে সেটাপ করলে যেকোন সফটওয়্যারের মতই এটি সহজে আনইন্সটল করা যায়।
===


তাহলে আপনার বুটেবল উবুন্টু পেনড্রাইভ রেডি! এতে আপনার পছন্দমত ওয়ালপেপার, সফটওয়্যার ইত্যাদি সেটাপ করুন। তারপর পেনড্রাইভটি পকেটে নিয়ে ঘুরুন, আর কম্পিউটার পেলেই চালিয়ে টেস্ট করুন - আপনার নিজের মনের মত করে সাজানো অপারেটিং সিস্টেমটি।

3 comments:

Md. Abdur Rahaman said...

UBUNTU is customizable. But too much! :)

Marks PC Solution has no support for Ubuntu. Supports are only available for XP, 7 and 8.

Unknown said...

thanks...... i saw a similar thing in a dvd. but didn't know how. it was written in a dvd. after booting, the os ran from dvd.

Adnan Shameem said...

@Emrul

Yes. You can make a CD/DVD of Ubuntu OS too. Just download the ISO file from ubuntu.com and burn it to CD/DVD with Nero or ImgBurn (Freeware). And the CD/DVD will boot a complete OS! This is especially good if your Windows is messed up and you need to work as an emergency. But you can work with it as your regular OS too.

@munnamark

Are you defining an advantage that "Marks PC Solution has no support for Ubuntu. Supports are only available for XP, 7 and 8."

Is it an advertisement or DISadvertisement?! :-/

 

Blogroll

Translate This Blog

Copyright © আদনানের ব্লগ Design by BTDesigner | Blogger Theme by BTDesigner | Powered by Blogger